ভোট গ্রহণ নিয়ে যা বলছে আন্তর্জাতিক প্রভাবশালী মিডিয়া

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে। বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টায় শুরু হওয়া এ ভোটগ্রহণ কার্যক্রম চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ভোট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোট টানা চতুর্থবার এবং পঞ্চম মেয়াদে জয়ী হয়ে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আবারও সরকার গঠন করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

অন্যদিকে নির্বাচন বর্জন করেছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপিসহ সমমনা দলগুলো। ভোটের আগে বিভিন্ন জায়গায় ঘটেছে সহিংসতার ঘটনাও। বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যম।

বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন শিরোনামে বলা হয়েছে- ‘বিরোধীদের নির্বাচন বয়কটের মধ্যেই ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে বাংলাদেশে। ভোট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’

প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে দ্য ইকোনমিক টাইমস। দ্য ইকোনমিক টাইমসের প্রতিবেদন শিরোনামে বলা হয়েছে- ‘নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে বাংলাদেশে : ১২ কোটি ভোটার বেছে নেবেন ২৯৯ জন সংসদ সদস্যকে।’

বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান। গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন শিরোনামে বলা হয়েছে- ‘পঞ্চম মেয়াদে জয়ের নিশ্চয়তায় নির্বাচন শুরু হয়েছে বাংলাদেশে।’

নির্বাচন নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা। আল জাজিরার প্রতিবেদন শিরোনামে বলা হয়েছে- ‘বিরোধীদের নির্বাচন বর্জনের ম্যধ্যে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে বাংলাদেশে।’

বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম অ্যাসোসিয়েট প্রেস (AP)। অ্যাসোসিয়েট প্রেসের প্রতিবেদন শিরোনামে বলা হয়েছে- ‘সহিংসতা এবং বিরোধীদের নির্বাচন বয়কটে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশের নির্বাচন : ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।’

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের তথ্যমতে, এবারের নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ১১ কোটি ৯৬ লাখ। ভোট গ্রহণের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে ৪২ হাজার কেন্দ্র। ৩০০ আসনের মধ্যে ২৯৯টিতে ভোট হণ হচ্ছে। একজন প্রার্থী মারা যাওয়ায় একটি কেন্দ্রের নির্বাচন পরবর্তীতে অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, নির্বাচনে মোট এক হাজার ৯৬৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে ২৮টি রাজনৈতিক দল থেকে প্রার্থী হয়েছেন এক হাজার ৫৩২ জন। আর স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন ৪৩৭ জন।

বিএনপি বলছে, আওয়ামী লীগ নির্বাচনকে বিশ্বাসযোগ্য করার চেষ্টা করার জন্য স্বতন্ত্র হিসেবে ‘ডামি’ প্রার্থী দিয়েছে। তবে ক্ষমতাসীন দল এই দাবি অস্বীকার করেছে। এর আগে ২০১৪ সালেও নির্বাচনও বয়কট করেছিল বিএনপি।

বিরোধীদল বিএনপি ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে না যাওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছে এবং শনিবার থেকে দেশব্যাপী দুদিনের হরতাল ডেকেছে দলটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *