‘ভোট কেনার’ সময় আটক স্বতন্ত্র প্রার্থীর ৩ কর্মী

নওগাঁ-৩ (মহাদেবপুর-বদলগাছী) আসনে টাকা দিয়ে ‘ভোট কেনার’ সময় ট্রাক প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থীর তিন কর্মী ও সমর্থককে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী।

পরে তাদের ১৫ দিনের কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বদলগাছি উপজেলার চাকরাইল নিমতলী মোড় থেকে তাদের আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসার গোলাম মওলা।

রাত ১১টার দিকে সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে তিনি জানান, রাত সাড়ে ৮টায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ছলিম উদ্দীন তরফদারের (ট্রাক মার্কা) তিন কর্মীকে ভোটারদের নগদ টাকা প্রদানের সময় স্থানীয়রা আটক করে পুলিশকে খবর দেয়।

“পরে এসি ল্যান্ড গিয়ে টাকাসহ তাদেরকে পান। জিজ্ঞাসাবাদে তারা দোষ স্বীকার করলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে নির্বাচনি আচরণ বিধি ভঙ্গের দায়ে তাদেরকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে এবং জব্দকৃত ১৫ হাজার টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হবে।”

কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার বিলাশবাড়ি ইউনিয়নের মৃত মফিজ মণ্ডলের ছেলে মো. ফুলবর (৫৩), ভগবানপুর গ্রামের মৃত ইয়াছিন আলীর ছেলে বদলগাছী কৃষি অফিসের নৈশপ্রহরী মো. স্বাধীন হোসেন (৪৩) এবং একই ইউনিয়নের দিপগঞ্জ হলুদ বিহার এলাকার মৃত মকবুলের ছেলে মো. মন্জু (৫৪)।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, কারাদ্ণ্ডপ্রাপ্তরা আব্দুস সালাম চেয়ারম্যানের বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে চাকরাইল নিমতলীর মোড়ে গিয়ে ভাগাভাগি করে।

তবে এবিষয়ে জানতে চাইলে সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুঠোফোনে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমার বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে যাওয়ার প্রশ্নই আসে না। এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।”

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোসা. আতিয়া খাতুন মোবাইলে বলেন, নির্বাচন উপলক্ষ্যে ঘুষ গ্রহণের জন্য ১৮৬০ সালের বিধি মোতাবেক তিনজনকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। তাদের কাছ থেকে নগদ ১৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

এসময় বদলগাছি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহবুব আলমসহ অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *