নৌকা-ঈগল সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ

গোপালগঞ্জ-১ আসনের মুকসুদপুরে নৌকা ও ঈগল প্রতীকের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে নারীসহ ২০ জন আহত হয়েছে। এছাড়াও ৩টি দোকান ও ৮টি বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত উপজেলার মোচনা ইউনিয়নের শুয়াশুর গ্রামে এ সংর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতদের মুকসুদপুর ও ফরিদপুর হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মোচনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমদাদ মোল্লাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়েছে ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার মোচনা ইউনিয়নের শুয়াশুর গ্রামে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মুহাম্মদ ফারুক খান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী কাবির মিয়ার ঈগল প্রতীকের সমর্থকদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এ ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উভয় পক্ষের সমর্থকেরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এতে উভয় পক্ষের ২০জন আহত হয়।

এসময় সংঘর্ষকারীরা ৩টি দোকানসহ রাজ্জাক শেখ, মারুফ শেখ, নওসার শেখ, রবিউল শেখের বাড়িসহ প্রায় ৮ বাড়িঘর ভাঙচুর করেছে। গুরুতর আহত হয়েছেন- রুবেল শেখ (৩৫), ফিরোজ শেখ (৬৫), বিপ্লব শেখ (৩০), শামিম শেখ (৩৫), রসুল শেখ (৩০), তানিয়া আক্তার (২২), কাদু শেখ। আহতদের মুকসুদপুর ও ফরিদপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মুকসুদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মাদ আশরাফুল আলম জানান, নৌকা ও ঈগলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোচনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমদাদ মোল্লাকে থানায় আনা হয়েছে। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *