অবশেষে তুলে নেওয়া হলো হিজাবের উপরে নিষেধাজ্ঞা

গত বিজেপি সরকারের আমলে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কর্ণাটকে হিজাবের ওপর যে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল, তা তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন রাজ্যের নতুন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারমাইয়াহ।

শুক্রবার রাজ্যের মাইসোর শহরে এক জনসভায় কংগ্রেস কর্ণাটক রাজ্য শাখার এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘হিজাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা আর নেই। নারীরা হিজাব পরতে পারবেন এবং যে কোনো জায়গায় যেতে পারবেন। আপনারা কী পরবেন না পরবেন তা সম্পূর্ণ আপনাদের পছন্দ। আমি কেন তাতে বাধা দেবো?’

প্রসঙ্গত, ভারতের বিজেপিশাসিত রাজ্যগুলোতে মাছ-মাংস ব্যবসায়ী এবং যেসব হোটেল আমিষ খাবার প্রস্তুত করে— তাদের নানাভাবে হয়রানি করা হয়। সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশের নতুন মুখ্যমন্ত্রী মোহন যাদব নির্বাচিত হওয়ার পরদিনই রাজ্যে প্রকাশ্যে মাছ-মাংস-ডিম বিক্রির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন।

নিজ বক্তব্যে সেদিকে ইঙ্গিত করে সিদ্দারমাইয়াহ বলেন, ‘আপনাদের যা পরতে ইচ্ছে করে, পরবেন; যা খেতে ইচ্ছে করে— খাবেন। আমি যেমন আমার যা ইচ্ছে খাই, আপনারাও তা ই করবেন। আমি ধুতি পরি, অন্যকেউ প্যান্টশার্ট পরে— এখানে সমস্যা কোথায়?’

২০২২ সালে বিজেপির কর্ণাটক রাজ্য শাখার শীর্ষ নেতা ও মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাইয়ের নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মুসলিম নারী শিক্ষার্থীদের হিজাব পরার ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে। সরকারের এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছিল রাজ্যে এবং বহু মুসলিম অভিভাবক নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে কর্ণাটক হাইকোর্টে পিটিশন জমা দিয়েছিলেন; কিন্তু উচ্চ আদালত রাজ্য সরকারের রায় বহাল রাখেন।

পরে অভিভাবকরা সুপ্রিম কোর্টে আপিল করেন, কিন্তু শীর্ষ আদালতও এ ইস্যুতে বিভক্ত রায় প্রদান করেন।

গত জুনে কর্ণাটকের বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করে কংগ্রেস। নির্বাচনে জয়ের পর এক তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় কর্ণাটকের বর্তমান রাজ্য সরকারের মন্ত্রী ও কংগ্রেস নেতা প্রিয়ঙ্ক খাড়্গে এনডিটিভিকে বলেছিলেন, গত বিজেপি সরকারের আমলে রাজ্যে যত নিপীড়নমূলক আইন প্রণয়ন করা হয়েছিল, সব একে একে বাতিল করা হবে।

সূত্র : এনডিটিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *