Home / সর্বশেষ / নিরবে হারিয়ে যাওয়ার পথে রুবেল!

নিরবে হারিয়ে যাওয়ার পথে রুবেল!

কিছু গল্প থাকে যেগুলোকে সামান্য বললে হয়তো ভুল বলা হবে ৷ কারন গল্পের শেষে থাকে মহাকাব্য রচনার ইতিহাস৷ শিউরিয়ে ওঠে শরীরের পশম৷ শুরু করা যাক তেমনি মহাকাব্য রচনার একটি গল্প৷

তখন ঘরের মাঠে প্রথমবারের মত নিউজিল্যান্ড এর মত দলকে হোয়াইট-ওয়াশ করার হাতছানি৷ ইতিহাস রচনায় বাংলাদেশর প্রয়োজন একটি উইকেট৷ অপরদিকে প্রতিপক্ষের প্রয়োজন মাত্র চার রান৷

সে সময়ে একটি জয় মানে এভারেষ্ট জয়ের সমান ছিল টিম বাংলাদেশের কাছে৷ স্বাভাবিকভাবে হোয়াইটওয়াশের স্বাদ ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব নয়৷ রোমাঞ্চের শেষ ওভারের দায়িত্ব রুবেলের কাঁধে৷

গ্যালারী ভর্তি দর্শক, টেলিভিশনের সাদা-কালো কিংবা রঙ্গিন পর্দার সামনে বসে পড়ন্ত বিকেলে সৃষ্টিকর্তার সু-দৃষ্টি কামনায় ব্যস্ত কোটি বাংঙ্গালি৷ বল হাতে ছুটে উফ বলে শিউরিয়ে উঠে বল ছাড়লেন রুবেল ৷

ক্ষনিকের জন্য স্তব্ধ পুরো বাংলাদেশ ৷ কি হতে যাচ্ছে এমন কিছুতে মগ্ন সবাই ঠিক তখনি উল্লাসের শুরু, রুবেলের ডান হাত তুলে অবিরাম ছুটে চলা,পেছনে বাকি দশজন৷ কি হয়েছে তা বুঝে গেছে সকলে৷ তৈরী হয়েছে প্রথমবারের মত মহাইতিহাস ৷

বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসে একটি সময় ছিল যখন প্রথমার্ধ মানেই খেলার সমাপ্তি৷ প্রতিপক্ষ প্রথমে ব্যাট করলে রান তিন শতাধিক নতুবা বাংলাদেশ শুরু করলে দুইশর পূর্বে অলআউট৷ এটি ছিল নিয়মিত চিত্র৷

ভারতের মত দলকে শতকের ঘরে অলআউট করেও জয়ের স্বাদ না পাওয়া দলটিও বাংলাদেশ৷ প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করার চেয়ে এক ম্যাচ ছিল আকাশ চুম্বী স্বপ্ন৷ বারবার কাছে গিয়ে জয় না পাওয়ার পর সবুজ গালিচায়র কংক্রিটের চেয়ারে বসে কান্না করা মানুষের সংখ্যাও ছিল অগণিত ৷

সে সময় জিততে না পারা দলটির পেস বোলিংয়ে ভরসার নাম ছিল রুবেল হোসেন৷ দূরন্ত গতিতে ছুটে আসা এই বোলার বর্তমানে নিরবে হারিয়ে যাওয়ার পথে ৷ ফিরে আসা যাক আরেক রোমাঞ্চের অতীত স্মৃতিতে ৷

২০১৫ সাল৷ বিশ্বমঞ্চে দ্বিতীয় বার ইংল্যান্ড বধের হাতছানি ৷ সবকিছুই যখন চলছিল ঠিকঠাক ৷ তখন ভুল করে ফেললেন মিস্টার খাঁন ৷ হতাশার ছাপ এক খন্ড বাংলাদেশের চোখে মুখে ৷

হাতছানি পূরণের গুরু দায়িত্ব ঘুরে ফিরে রুবেলের হাতে৷ ওভারের প্রথম বলে কিছু বুঝে ওঠার আগে ভেঙ্গে দিলেন ব্রড এর উইকেট ৷ হতাশা কেটে গেল আংশিক ৷ শেষ ব্যাটার হিসেবে মাঠে নামলেন অ্যান্ডারসন৷ দ্বিতীয় বল কোন মতে ঠেকিয়ে দিলেন ৷

তখনো বাকি রোমাঞ্চ ৷ তৃতীয় বলে আবারও রুবেলের সাফল্য ৷ তখন পুরো বাঙ্গালি গোষ্ঠীর মুখে সফলতার হাসি ৷ এক রুবেলের পেছনে পুরো দলের ছুটে চলা ৷ হবেই না কেন হয়ে গেছে এতক্ষনে মহাকাব্য ৷

সময়ের পরিক্রমায় দল হচ্ছিল পরিণত ৷ দলে থিতু হতে শুরু করেছিল ফিজ,তাসকিনের মত বোলার৷ সমান তালে পারফরম্যান্স অব্যাহত থাকলেও মাঝে মধ্যেই দল থেকে বাদ পড়তো রুবেল৷ সুযোগ পেলে নিজেকে প্রমাণ করতো অতীতের মতই ৷

তবে অদৃশ্য কারনে এখন অবহেলার পাত্র এই সিনিয়র সদস্য ৷ জাতীয় দলের সাইট বেঞ্চে বসে ম্যাচের পর ম্যাচ উপভোগ করলেও সুযোগ হয়নি একাদশে ৷

বর্তমানে জাতীয় দলের বাইরে থাকা এই বোলার চলমান ডিপিএলে খেলছে প্রাইম ব্যাংকের হয়ে৷ যে সময় বাংলাদেশ দল ছিল অধারাবাহিক সে সময় নিজেকে প্রমাণ করেছিল বারবার৷ তাই নতুন করে প্রমাণের কিছু নেই ৷

জাতীয় দলে বর্তমান পেসাররা খুব একটা খারাপ করছে না ৷ তাই ভালো করে জায়গা মিলছে না রুবেলের৷ তবে সিনিয়র এই খেলোয়াড়ের আক্ষেপ রয়েছে অনেক ৷ থাকাটাও অস্বাভাবিক নয় মোটেও৷ মাঠের লড়াইয়ে সংগ্রামী রুবেল আবারও হাসাতে পারে পুরো দেশকে৷

সুত্রঃ নটআউট

Check Also

তুরস্কে ১০০১ জন কোরআনে হাফেজকে দেওয়া হলো সম্মাননা

এবার তুরস্কের এরজুরুম ভিলায়েত প্রদেশে সদ্য কোরআন হিফজ করা এক হাজার শিক্ষার্থীকে সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.