Home / সর্বশেষ / নিরবে হারিয়ে যাওয়ার পথে রুবেল!

নিরবে হারিয়ে যাওয়ার পথে রুবেল!

কিছু গল্প থাকে যেগুলোকে সামান্য বললে হয়তো ভুল বলা হবে ৷ কারন গল্পের শেষে থাকে মহাকাব্য রচনার ইতিহাস৷ শিউরিয়ে ওঠে শরীরের পশম৷ শুরু করা যাক তেমনি মহাকাব্য রচনার একটি গল্প৷

তখন ঘরের মাঠে প্রথমবারের মত নিউজিল্যান্ড এর মত দলকে হোয়াইট-ওয়াশ করার হাতছানি৷ ইতিহাস রচনায় বাংলাদেশর প্রয়োজন একটি উইকেট৷ অপরদিকে প্রতিপক্ষের প্রয়োজন মাত্র চার রান৷

সে সময়ে একটি জয় মানে এভারেষ্ট জয়ের সমান ছিল টিম বাংলাদেশের কাছে৷ স্বাভাবিকভাবে হোয়াইটওয়াশের স্বাদ ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব নয়৷ রোমাঞ্চের শেষ ওভারের দায়িত্ব রুবেলের কাঁধে৷

গ্যালারী ভর্তি দর্শক, টেলিভিশনের সাদা-কালো কিংবা রঙ্গিন পর্দার সামনে বসে পড়ন্ত বিকেলে সৃষ্টিকর্তার সু-দৃষ্টি কামনায় ব্যস্ত কোটি বাংঙ্গালি৷ বল হাতে ছুটে উফ বলে শিউরিয়ে উঠে বল ছাড়লেন রুবেল ৷

ক্ষনিকের জন্য স্তব্ধ পুরো বাংলাদেশ ৷ কি হতে যাচ্ছে এমন কিছুতে মগ্ন সবাই ঠিক তখনি উল্লাসের শুরু, রুবেলের ডান হাত তুলে অবিরাম ছুটে চলা,পেছনে বাকি দশজন৷ কি হয়েছে তা বুঝে গেছে সকলে৷ তৈরী হয়েছে প্রথমবারের মত মহাইতিহাস ৷

বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসে একটি সময় ছিল যখন প্রথমার্ধ মানেই খেলার সমাপ্তি৷ প্রতিপক্ষ প্রথমে ব্যাট করলে রান তিন শতাধিক নতুবা বাংলাদেশ শুরু করলে দুইশর পূর্বে অলআউট৷ এটি ছিল নিয়মিত চিত্র৷

ভারতের মত দলকে শতকের ঘরে অলআউট করেও জয়ের স্বাদ না পাওয়া দলটিও বাংলাদেশ৷ প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করার চেয়ে এক ম্যাচ ছিল আকাশ চুম্বী স্বপ্ন৷ বারবার কাছে গিয়ে জয় না পাওয়ার পর সবুজ গালিচায়র কংক্রিটের চেয়ারে বসে কান্না করা মানুষের সংখ্যাও ছিল অগণিত ৷

সে সময় জিততে না পারা দলটির পেস বোলিংয়ে ভরসার নাম ছিল রুবেল হোসেন৷ দূরন্ত গতিতে ছুটে আসা এই বোলার বর্তমানে নিরবে হারিয়ে যাওয়ার পথে ৷ ফিরে আসা যাক আরেক রোমাঞ্চের অতীত স্মৃতিতে ৷

২০১৫ সাল৷ বিশ্বমঞ্চে দ্বিতীয় বার ইংল্যান্ড বধের হাতছানি ৷ সবকিছুই যখন চলছিল ঠিকঠাক ৷ তখন ভুল করে ফেললেন মিস্টার খাঁন ৷ হতাশার ছাপ এক খন্ড বাংলাদেশের চোখে মুখে ৷

হাতছানি পূরণের গুরু দায়িত্ব ঘুরে ফিরে রুবেলের হাতে৷ ওভারের প্রথম বলে কিছু বুঝে ওঠার আগে ভেঙ্গে দিলেন ব্রড এর উইকেট ৷ হতাশা কেটে গেল আংশিক ৷ শেষ ব্যাটার হিসেবে মাঠে নামলেন অ্যান্ডারসন৷ দ্বিতীয় বল কোন মতে ঠেকিয়ে দিলেন ৷

তখনো বাকি রোমাঞ্চ ৷ তৃতীয় বলে আবারও রুবেলের সাফল্য ৷ তখন পুরো বাঙ্গালি গোষ্ঠীর মুখে সফলতার হাসি ৷ এক রুবেলের পেছনে পুরো দলের ছুটে চলা ৷ হবেই না কেন হয়ে গেছে এতক্ষনে মহাকাব্য ৷

সময়ের পরিক্রমায় দল হচ্ছিল পরিণত ৷ দলে থিতু হতে শুরু করেছিল ফিজ,তাসকিনের মত বোলার৷ সমান তালে পারফরম্যান্স অব্যাহত থাকলেও মাঝে মধ্যেই দল থেকে বাদ পড়তো রুবেল৷ সুযোগ পেলে নিজেকে প্রমাণ করতো অতীতের মতই ৷

তবে অদৃশ্য কারনে এখন অবহেলার পাত্র এই সিনিয়র সদস্য ৷ জাতীয় দলের সাইট বেঞ্চে বসে ম্যাচের পর ম্যাচ উপভোগ করলেও সুযোগ হয়নি একাদশে ৷

বর্তমানে জাতীয় দলের বাইরে থাকা এই বোলার চলমান ডিপিএলে খেলছে প্রাইম ব্যাংকের হয়ে৷ যে সময় বাংলাদেশ দল ছিল অধারাবাহিক সে সময় নিজেকে প্রমাণ করেছিল বারবার৷ তাই নতুন করে প্রমাণের কিছু নেই ৷

জাতীয় দলে বর্তমান পেসাররা খুব একটা খারাপ করছে না ৷ তাই ভালো করে জায়গা মিলছে না রুবেলের৷ তবে সিনিয়র এই খেলোয়াড়ের আক্ষেপ রয়েছে অনেক ৷ থাকাটাও অস্বাভাবিক নয় মোটেও৷ মাঠের লড়াইয়ে সংগ্রামী রুবেল আবারও হাসাতে পারে পুরো দেশকে৷

সুত্রঃ নটআউট

Check Also

ফ্রি কিকে মেসিকে ছাড়া অন্য কাউকে ভরসা করা যায়না পিএসজি কোচ গালতিয়ের

দারুণ ছন্দে আছেন লিওনেল মেসি। গেল মৌসুমের ব্যর্থতা কাটিয়ে ধীরেধীরে নিজের জাত চেনাতে শুরু করেছেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.