Home / সর্বশেষ / ভুলত্রুটিপূর্ণ একাদশের মাশুল গুনলো বাংলাদেশ

ভুলত্রুটিপূর্ণ একাদশের মাশুল গুনলো বাংলাদেশ

হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে জিম্বাবুয়ের কাছে প্রথম ম্যাচে হেরে গেছে বাংলাদেশ। ম্যাচ শেষে অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান অবশ্য হারের কারণ খোঁজার চেষ্টা করেছেন। ম্যাচ শেষে তার ব্যাখ্যা, শেষ ৫-৬ ওভারে বেশি রান দিয়ে ফেলা কাল হয়েছে। তাই পারিনি আমরা।

শনিবার ১৫ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের স্কোরবোর্ডে ছিল ৩ উইকেটে ১২৮ রান। সেখান থেকে ২০ ওভার শেষে সেই স্কোর গিয়ে ঠেকে ২০৫ রানে। অর্থাৎ শেষ ৩০ বলে জিম্বাবুয়ের ব্যাটাররা জুড়ে দিয়েছেন ৭৭ রান। আরেকটু বড় চিত্র ধরলে, শেষ ৯ ওভারে তারা করেছে ১২৫ রান।

অথচ তার আগে খেলার যে চালচিত্র ছিল, জিম্বাবুয়ের ব্যাটারদের রান তোলার যে গতি ছিল, তাতে স্বাগতিকদের স্কোর ১৬০ এর ঘরে থাকাটাই ছিল স্বাভাবিক। বোলিং বাজে হলে হয়তো ১৮০ করার সম্ভাবনা ছিল তাদের। কিন্তু সিকান্দার রাজার অতিমানবীয় উইলোবাজি ও বাংলাদেশের বোলারদের চরম আলগা বোলিংয়ে জিম্বাবুয়ে করে ২০৫ রান।

যদিও বছরখানেক আগে এই হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে ১৯৩ রান টপকে জেতার রেকর্ড ছিল টাইগারদের, তারপরও এবারের তারুণ্যনির্ভর দলটির জন্য ২০৬ রানের টার্গেট যে একটু বেশিই বড়। যার অলরাউন্ডিং নৈপুণ্য সিরিজ জিততে রেখেছিল বড় ভূমিকা, সেই সৌম্য সরকারও নেই এবার দলে।

যারা আছেন তাদের মধ্যে লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত ও অধিনায়ক সোহান সাধ্যমতো চেষ্টা করেছেন। কিন্তু তা দল জেতানোর জন্য যথেষ্ট ছিল না। তাই শেষ রক্ষা হয়নি। বাংলাদেশ পারেনি, হেরেছে। তবে এর বাইরেও অনেক কথা থেকে যায়।

টিম ম্যানেজমেন্টের ভুল ও অদূরদর্শী একাদশ নির্বাচনও বাংলাদেশকে ভুগিয়েছে এবং এটিই হারের অন্যতম প্রধান কারণ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে করা ভুলের পুনরাবৃত্তি ঘটলো হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠেও। বৃষ্টিতে প্রথম ম্যাচ ধুয়েমুছে যাওয়ার পর ডমিনিকার উইন্ডসোর পার্কে দ্বিতীয় ম্যাচে তিন পেসার নিয়ে মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ।

সে ম্যাচেও ব্যাটিংবান্ধব পিচে ক্যারিবীয় ব্যাটারদের উত্তাল উইলোবাজির মুখে খেই হারিয়ে ফেলেন বাংলাদেশের তিন পেসার তাসকিন (৩ ওভারে ৪৬), শরিফুল (৪ ওভারে ৪০) ও মোস্তাফিজ (৪ ওভারে ৩৭)। তিনজনে মিলে ১১ ওভারে দিয়েছিলেন ১২৩ রান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ গড়েছিল ১৯৩ রানের পাহাড়।

পরের ম্যাচেই এ ফর্মুলা থেকে সরে আসে বাংলাদেশ। তাসকিনকে বাদ দিয়ে একাদশে বাড়তি স্পিনারের অন্তর্ভুক্তি ঘটানো হয়, যুক্ত হন বাঁহাতি স্পিনার নাসুম আহমেদ। ঠিক ২৬ দিন পর হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে আবার সেই ভুল পথে হাঁটা।

এবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আবার তিন পেসার নিয়ে নেমে পড়া। কিন্তু ব্যাটিংবান্ধব পিচে বাংলাদেশের বোলারদের দুর্বলতা ও ঘাটতি বিস্তর। এবার তাসকিন (৪ ওভারে ৪২), শরিফুল (৪ ওভারে ৪৫) ও মোস্তাফিজ (৪ ওভারে ৫০)- তিন পেসার মিলে ১২ ওভারে দিয়েছেন ১৩৭ রান।

পরিসংখ্যান পরিস্কার বলে দিচ্ছে তিন পেসার খেলানোর কোনো সুফল পায়নি বাংলাদেশ। ভুলত্রুটিপূর্ণ একাদশ গড়ার কারণে প্রতিপক্ষ শুরুতেই বড়সড় স্কোর গড়ে বসছে। যে রান টপকে যাওয়ার মতো ব্যাটিং শক্তি ও ম্যাচ জেতানো পরিণত ব্যাটার নেই বাংলাদেশের বর্তমান দলে।

Check Also

গ্রুপপর্বেই শেষ বেলজিয়ামের সোনালি প্রজন্মের দৌড়, ক্রোয়েশিয়ার উত্তরণ

রেফারির শেষ বাঁশি। আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়ামে বসে পড়লেন লুকাকু-ডি ব্রুইনারা। গত বিশ্বকাপের সেমিফাইনালিস্ট ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published.