Home / সর্বশেষ / অবশেষে মেসি বিহীন ৬ গোলে ম্যাচ জিতল দল!

অবশেষে মেসি বিহীন ৬ গোলে ম্যাচ জিতল দল!

মেসি না থাকলেও ৬ গোলে জিতল দল! প্রতিপক্ষের জালে ছয় গোল জড়ানোর স্বাদটা কেমন, লিওনেল মেসি চলে যাওয়ার পর থেকে সেটা যেন ভুলেই গিয়েছিল বার্সেলোনা।

সেই ভুলতে বসা স্বাদটাই বার্সা পেয়েছে আজ সকালে। প্রাক মৌসুম প্রীতি ম্যাচে ইন্টার মিয়ামিকে দলটি উড়িয়ে দিয়েছে ৬-০ গোলে।

সেটাও আবার রবার্ট লেভান্ডভস্কিকে বেঞ্চে বসিয়ে রেখেই! তাতে এই স্কোরলাইনের মাহাত্ম্যটাও বেড়ে যাচ্ছে কয়েক গুণে।

লেভান্ডভস্কিকে দলে ভেড়ানোর খবরটা আনুষ্ঠানিকভাবে জানানোর আগের দিন রাফিনিয়াকে দলে ভিড়িয়েছে বার্সা। সেই রাফিনিয়াই আলো ছড়িয়েছেন প্রথমার্ধে।

১৯ মিনিটে তার বাড়ানো বলে আলতো চিপ করে প্রথম গোল করেন তিনি। এর মিনিট ছয়েক পর তিনি নিজেই গোল করেন দারুণ বিচক্ষণ এক শটে।

৪১ মিনিটে স্কোরলাইন ৩-০ করেন আনসুমান ফাতি, সেটার যোগানও দিয়েছেন তিনিই। দ্বিতীয়ার্ধে মেম্ফিস ডিপাইয়ের নিচু কর্নার থেকে গোল করেন পাবলো পায়েজ গাভি।

৬৯ মিনিটে মেম্ফিস নিজেই গোলের দেখা পেয়ে যান। এর পরের মিনিটে উসমান দেম্বেলে স্কোরলাইন ৬-০ করেন।

এর ফলে প্রায় ১৬ মাস পর বার্সেলোনা প্রতিপক্ষের জালে জড়াল ৬ গোল। সবশেষ ২০২১ সালের ২২ মার্চ রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠে এই স্বাদ পেয়েছিল বার্সা।

সেই ম্যাচে লিওনেল মেসি আর সার্জিনিও ডেস্ট করেছিলেন জোড়া গোল, আর অ্যান্টোয়ান গ্রিজমান-দেম্বেলে করেছিলেন একটি করে গোল।

মিয়ামির জালে ৬ গোল জড়িয়ে মেসি-যুগের স্মৃতিই ফিরিয়েছে বার্সা। গতকাল মঙ্গলবার লেভান্ডভস্কিকে বার্সেলোনার নতুন খেলোয়াড় হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়।

তবে সাবেক বায়ার্ন তারকা অবশ্য এই ম্যাচে খেলেননি। তবে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে তাকে পাবে বার্সেলোনা, জানাচ্ছে মার্কা।

তবে তাকে ছাড়াই বার্সেলোনার ফরোয়ার্ডদের এমন পারফর্ম্যান্স দলটিকে দেখাচ্ছে নতুন দিনের আশা। শেষ এক বছরে যেখানে গোলের জন্য হাপিত্যেশ করে মরেছে দল,

সেখানে নতুন মৌসুম শুরুর আগেই এমন পারফর্ম্যান্স। তাও দলের সবচেয়ে বড় অস্ত্র ব্যবহার না করেই! কোচ জাভি হার্নান্দেজ নতুন করে আশা দেখতেই পারেন!

Check Also

পেনাল্টি শুট আউটে কাজে লাগিয়ে স্পেনকে হারিয়ে দিল মরক্কো

শক্তির বিচারে পিছিয়ে থাকলেও মরক্কোর মাঠের খেলায় পাওয়া গেলো না সেই ছাপটুকুও। কাউন্টার অ্যাটাকে বেশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.