ছেলেকে না পেয়ে মাকে গ্রেপ্তার!

ছেলেকে না পেয়ে মাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে গেছে পুলিশ। এ ঘটনা ঘটেছে কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে। গত বৃহস্পতিবার আনোয়ারা বেগম নামে ওই নারীকে গ্রেপ্তারের পর কারাগারে পাঠানো হয়। আনোয়ারা বেগম উপজেলার বক্সগঞ্জ ইউনিয়নের চান্দপুর গ্রামের মুন্সি মিয়ার স্ত্রী।

জানা গেছে, আনোয়ারা বেগমের ছেলে রবিউল হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা করেন তার শ্বশুর। পুলিশ বাড়িতে গিয়ে রবিউল হোসেনকে না পেয়ে তার মা আনোয়ারা বেগমকে নিয়ে যায়।

পরিবারের দাবি, আনোয়ারা বেগম ওয়ারেন্টভুক্ত ও এজাহারভুক্ত আসামি না হওয়ার পরও পুলিশ তাকে নিয়ে গেছে।

অন্যদিকে পুলিশ বলছে, মামলার তদন্তে আনোয়ারা বেগমের সম্পৃক্ততা পাওয়ায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, চান্দপুর গ্রামের এক কিশোরীকে বিয়ে করেন রবিউল হোসেন। তবে সেই বিয়ে মেনে নেয়নি কনের পরিবার। পরে রবিউলসহ তার পরিবারের চারজনের বিরুদ্ধে নাঙ্গলকোট থানায় অপহরণ মামলা করেন মেয়ের বাবা জাহাঙ্গীর।

রবিউল ছাড়া মামলার অন্য আসামিরা হলেন- তার ভাই আমির হোসেন, মোহাম্মদ মুস্তফা এবং বোন তাজনেহার বেগম। তবে এজহারে আনোয়ারা বেগমের নাম ছিল না।

আসামীর ভাই আমির হোসেন অভিযোগ করে বলেন, আমার ভাই রবিউলকে বাড়িতে না পেয়ে নাঙ্গলকোট থানার পুলিশ আমার বৃদ্ধা মা আনোয়ারা বেগমকে জোর করে তুলে নিয়ে যায়। পুলিশ হয়রানির উদ্দেশ্যে আমার মাকে গ্রেপ্তার করেছে।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানা ওসি দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, তদন্তে আনোয়ারা বেগমের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। তাই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *