Home / সর্বশেষ / সিনিয়র ক্রিকেটারদের বিশ্রাম দিয়ে ইমরুল-সাব্বিরদেরকে দলে রেখে জিম্বাবুয়ে বিরুদ্ধে দল ঘোষণা

সিনিয়র ক্রিকেটারদের বিশ্রাম দিয়ে ইমরুল-সাব্বিরদেরকে দলে রেখে জিম্বাবুয়ে বিরুদ্ধে দল ঘোষণা

সাকিব আল হাসানের শূন্যতা পূরণ না হলেও মাঝে মধ্যে তাঁকে ছাড়া খেলা দলের জন্যই লাভ। বাঁহাতি এ অলরাউন্ডারের জায়গায় দু’জন খেলোয়াড়কে পরখ করে দেখতে পারে টিম ম্যানেজমেন্ট।

বিসিবি এই প্র্যাকটিসের ভেতর দিয়ে সাকিবকে ছাড়াও ভালো খেলতে শিখে যাবে বাংলাদেশ। যে উপলব্ধি সাকিবেরও। তাই তিনি প্রায়ই বলে থাকেন, কোনো একটি সিরিজে তাঁর না খেলা মানে অন্য কাউকে সুযোগ করে দেওয়া।

এতে করে খেলার সুযোগ পেলে একজন উদীয়মান ক্রিকেটার যেমন নিজেকে মেলে ধরার মঞ্চ পান, তেমনি টিম ম্যানেজমেন্ট বিকল্পদের পরখ করে নিতে পারে। ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ,

নিউজিল্যান্ডের মতো দেশ এখন নিয়মিতই বিকল্প ক্রিকেটারদের খেলার সুযোগ করে দেয়। বাংলাদেশের ক্রিকেটে যেটাকে দেখা হয় বিলাসিতা হিসেবে।

সিরিজ জিতে নেওয়ার পরও তাই বিকল্পদের রিজার্ভ বেঞ্চেই রেখে দেওয়া হয়। বিসিবি চায়, এই সংকীর্ণতা থেকে বের হয়ে আসতে। সিনিয়র ক্রিকেটারদের বিশ্রাম দিয়ে জুলাই-আগস্টের জিম্বাবুয়ে সফরে তিন ওয়ানডে ও তিন ম্যাচ টি-২০ সিরিজে

খেলাতে চায় উদীয়মান ও অবহেলিত কিছু খেলোয়াড়দের। গত বছর ওমান-আমিরাতের টি২০ বিশ্বকাপে ভরাডুবির পরই নতুন দল গড়ে তোলার বিষয়টি সামনে আনেন বিসিবির কয়েকজন পরিচালক।

পরীক্ষামূলকভাবে পাকিস্তানের বিপক্ষে হোম সিরিজের টি২০ ম্যাচগুলো খেলাও হয় অপেক্ষাকৃত তরুণদের নিয়ে। যে সিরিজে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল মুশফিকুর রহিম, লিটন দাসকে। চোটের কারণে খেলতে পারেননি সাকিব।

আর তামিম ইকবাল তো টি২০ খেলেনই না। যদিও বিপিএল পরবর্তীতে মুশফিক, সাকিব, লিটনদের নিয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলে দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজটি।

এবার উইন্ডিজ সফরের টি২০ দলে সাকিব, লিটনকে রাখা হলেও মুশফিক নেই। হজ পালন করতে ক্যারিবীয় সফর থেকে ছুটি নিয়েছেন তিনি।উইকেটরক্ষক এ ব্যাটারের জায়গায় খেলার সুযোগ পাবেন উদীয়মান কেউ।

যদিও জিম্বাবুয়ে সফর দিয়ে খেলায় ফিরতে চাইবেন মুশফিক। বিসিবিও তাই বিশ্রাম নীতিতে সিনিয়রদের পথ একেবারে বন্ধ করে দিচ্ছে না। ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসের মতে, ‘আমাদের পরিকল্পনা জিম্বাবুয়ে সফরে সিনিয়রদের বিশ্রাম দিয়ে তরুণদের পাঠানো।

তবে সিনিয়রদের কেউ খেলতে চাইলে সুযোগ থাকবে। বিকল্প খেলোয়াড়দের প্রস্তুত করতে সব দেশই এ ধরনের সুযোগ নেয়। আমাদের ক্রিকেটেও এটা চালু করতে চাই।

এ ছাড়া সিনিয়রদের বিশ্রামেরও তো প্রয়োজন পড়ে।’ ধারনা করা হচ্ছে এই সিরিজে দলে জায়গা পাবে অবহেলিত খেলোয়ার ইমরুল কায়েস, ও সাব্বির রহমান তা ছাড়াও জায়গা হতে পারে ভাল পারফোম করা নাইমের।

Check Also

ওপেনিংয়ে নতুন মুখ রেখে যেমন হতে পারে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের বাংলাদেশের একাদশ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে শেষবারের মতো পরীক্ষা নিরীক্ষা সুযোগ পাচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্ট। বিশ্বকাপের আগে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.