Home / সর্বশেষ / অবৈধ কাণ্ডে শাস্তি পেলেন বাবর আজম , এদিকে মামলা থেকে মুক্তি পেলেন রোনালদো

অবৈধ কাণ্ডে শাস্তি পেলেন বাবর আজম , এদিকে মামলা থেকে মুক্তি পেলেন রোনালদো

বাবর আজম কি ফিল্ডিংয়ের নিয়ম ভুলে গিয়েছিলেন? প্রশ্নটা পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ‘দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল’–এর। ভুল কিছু না। মুলতানে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পরশু দ্বিতীয় ওয়ানডেতে অবৈধ ফিল্ডিংয়ের জন্য জরিমানা গুনতে হয় পাকিস্তান দলকে। ৫ রান পেনাল্টি দিতে হয়।

২৭৫ রানের লক্ষ্যে ১২০ রানে হেরেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্যারিবিয়ানদের ইনিংসে ২৯তম ওভারের প্রথম বলে ঘটনাটি ঘটে। আলজারি জোসেপকে বল করছিলেন পাকিস্তানের বাঁহাতি স্পিনার মোহাম্মদ নওয়াজ।

শর্ট স্কয়ার লেগে দাঁড়িয়ে ছিলেন বাবর। স্টাম্প বরাবর থ্রো ধরতে উইকেটকিপার মোহাম্মদ রিজওয়ানের একটি গ্লাভস পরে ফিল্ডিং করেন পাকিস্তান অধিনায়ক।

ডান হাতে গ্লাভস পরে বলটি ধরেন তিনি। নিয়ম ভেঙে এভাবে ফিল্ডিং করায় মাঠের আম্পায়ার পাকিস্তানকে ৫ রান পেনাল্টি দেন এবং বাবরকে মৌখিকভাবে তিরস্কার করেন।

ক্রিকেটের নিয়মে ২৮.১ ধারায় বলা আছে, ‘উইকেটকিপার ছাড়া কোনো ফিল্ডার গ্লাভস কিংবা পায়ের গার্ড পরতে পারবেন না। হাত কিংবা আঙুলের প্রতিরক্ষার জন্য পরতে পারে, সে ক্ষেত্রে আম্পায়ারের অনুমতি লাগবে।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বশেষ কবে কোনো ফিল্ডার গ্লাভস পরে ফিল্ডিং পরে জরিমানা গুনেছেন, তা গবেষণার বিষয়। তবে ভারতের ক্রিকেট পরিসংখ্যানবিদ কৌস্তব গুদিপাতির দাবি,

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে গ্লাভস পরে ফিল্ডিং করে ৫ রান জরিমানা দেওয়া প্রথম ক্রিকেটার বাবর আজম। ২০১৩ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া ক্রিকেটে অ্যান্ড্রু হল ও অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেট ২০১৮ সালে ম্যাট রেন শ–র কাছ থেকে এমন কিছু দেখার কথাও জানান তিনি।

তবে স্পষ্ট তথ্য–প্রমাণ না থাকায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাবরই এমন কিছু দেখিয়েছেন, তা জোর দিয়ে বলা যায় না। তবে বাবর ৫ রান জরিমানা দিলেও ম্যাচ জিততে অসুবিধা হয়নি পাকিস্তানের।

অধিনায়ক নিজেও ৭৭ রানের ইনিংস খেলে একটি রেকর্ড গড়েন। ছেলেদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিন সংস্করণ মিলিয়ে টানা নয় ইনিংসে ন্যূনতম অর্ধশতক তুলে নিলেন বাবর।

ছেলেদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টানা ইনিংসে ন্যূনতম অর্ধশতক তুলে নেওয়ার রেকর্ড এটি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এর আগে টানা আট ইনিংসে ন্যূনতম অর্ধশতক তুলে নেওয়ার রেকর্ডটি ছিল বাবরেরই পূর্বসূরি জাভেদ মিয়াঁদাদের দখলে। তাঁর সব কটিই অবশ্য ওয়ানডে সংস্করণে।

মামলা থেকে মুক্তি পেলেন রোনালদো- যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে করা ধর্ষণ মামলা খারিজ করে দিয়েছেন বিচারক জেনিফার ডোরসি।

শুক্রবার এই ধর্ষণ মামলা থেকে পুরোপুরি অব্যাহতি পেয়েছেন রোনালদো। চাইলেও পুনরায় মামলা করতে পারবেন না ক্যাথরিন মায়োরগা নামের সেই নারী।

ঘটনা মূলত প্রায় ১৩ বছর আগে, ২০০৯ সালের। লাস ভেগাসে ঘুরতে গিয়ে একটি হোটেলে ক্যাথরিনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা হয় রোনালদোর। যা একপর্যায়ে শারীরিক সম্পর্কে রূপ নেয়। কিন্তু পরের বছরই এটিকে ধর্ষণ বলে অভিযোগ করতে থাকেন ক্যাথরিন। এমনকি মামলার হুমকিও দেন।

তখন ক্যাথরিনকে চুপ রাখার জন্য প্রায় পৌনে ৪ লাখ ডলার দেন রোনালদো। সে দফায় কোর্টের বাইরেই নিষ্পত্তি ঘটে দুই পক্ষের বিরোধের। কিন্তু পরে আবারও এ বিষয়ে অভিযোগ করেন ক্যাথরিন। তার অনুরোধের ভিত্তিতে ২০১৮ সালের আগস্টে আবারও এ বিষয়ে আইনী তদন্ত শুরু হয়।

ক্যাথরিনের অভিযোগের বিপরীতে রোনালদোর লিগ্যাল টিম শুরু থেকেই বলে আসছিল, দুজনের মধ্যে যা হয়েছিল সবই পারস্পরিক সম্মতিতে হয়েছে। তাই এ মামলার কোনো ভিত্তি নেই এবং রোনালদোকে কারণ ছাড়াই হয়রানি করা হচ্ছে। শেষ পর্যন্ত এটিই সত্য প্রমাণিত হলো।

বিচারক জেনিফার ডোরসি তার ৪২ পৃষ্ঠার রায়ে জানিয়েছেন, পুনরায় আর এই মামলা করা যাবে না। পাশাপাশি রোনালদোর সঙ্গে করা খারাপ আচরণের কারণে শাস্তির মুখে পড়তে হবে ক্যাথরিনের আইনজীবী লেজল মার্ক স্টোভালকে। এছাড়া কোর্টে উপস্থাপিত কাগজপত্র বেশিরভাগই সাজানো ছিল বলে উল্লেখ করেছেন বিচারক।

Check Also

পেনাল্টি শুট আউটে কাজে লাগিয়ে স্পেনকে হারিয়ে দিল মরক্কো

শক্তির বিচারে পিছিয়ে থাকলেও মরক্কোর মাঠের খেলায় পাওয়া গেলো না সেই ছাপটুকুও। কাউন্টার অ্যাটাকে বেশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.