Home / সর্বশেষ / বিপিএল-বিগ ব্যাশের আলো কেড়ে নিতে নতুন প্রিমিয়ার লিগ চালু করছে দুবাই!

বিপিএল-বিগ ব্যাশের আলো কেড়ে নিতে নতুন প্রিমিয়ার লিগ চালু করছে দুবাই!

ধারণা করা হচ্ছিল চলতি বছরই পর্দা উঠবে আরব আমিরাত টি-টোয়েন্টি লিগের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নানা কারণে তা হয়ে উঠছে না। তবে জাঁকজমকপূর্ণ এই টুর্নামেন্ট আয়োজনে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ড।

সব ঠিক থাকলে ২০২৩ সালের ৬ জানুয়ারি প্রথমবারের মত মাঠে গড়াবে টুর্নামেন্টটি। আর ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১২ ফেব্রুয়ারি। আপাতত এই সূচি ধরেই সব কার্যক্রম চালনা করছে টুর্নামেন্টের আয়োজকরা।

তবে যে সূচিতে নতুন এই টি-টোয়েন্টি লিগ আয়োজনের কথা ভাবছে এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ড, তা হলে শেষ পর্যন্ত বড় মাশুল গুনতে হবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল), বিগ ব্যাশ এবং দক্ষিণ আফ্রিকার টি-টোয়েন্টি লিগকে।

কারণ ইউএই টি-টোয়েন্টি লিগের সূচির সঙ্গে সংঘর্ষ হবে এই ৩টি টুর্নামেন্টের সঙ্গে। শুধু এই ৩ লিগই নয়, সংঘর্ষ হতে পারে পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) সাথেও।

তবে তা নির্ভর করবে টুর্নামেন্টটির অষ্টম আসরের সূচির সঙ্গে। তবে সংঘর্ষ হলেও নির্ধারিত সময়ে টুর্নামেন্ট আয়োজনের ব্যাপারে আশাবাদী এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান শেখ নাহায়ান মুবারাক আল নাহায়ান।

সোমবার নাহায়ন বলেন, ‘আমি আত্মবিশ্বাসী যে টুর্নামেন্টটি সূচি অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া এটাও আশা করছি যে এই টুর্নামেন্ট দিয়ে আমরা আরও উচ্চতায় পৌঁছানোর সঙ্গে সকলকে বিনোদন দিতে পারব। আমি জানি এই টুর্নামেন্টটিকে মাঠে গড়াতে দেখানোর জন্য অনেকেই মুখিয়ে আছে’।

৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এই লিগে অংশ নিচ্ছে ৬ দল। ৩৪টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে হোম-এওয়ের ভিত্তিতে। সেই সঙ্গে থাকছে প্লে-অফও। টুর্নামেন্টটির চেয়ারম্যান খালিদ আল আশা করছেন এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে বিশ্বের সেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটারদের সঙ্গে ড্রেসিংরুম শেয়ার করে আরও অভিজ্ঞ হয়ে উঠবে দেশটির ক্রিকেটাররা।

খালিদ বলেন, ‘এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি টুর্নামেন্ট আমাদের কাছে। কারণ এর মধ্য দিয়ে আরব আমিরাতের ক্রিকেটাররা নিজেদের মেলে ধরতে পারবে। কারণ তারা বিশ্ব ক্রিকেটের অনেক বড় বড় তারকার সঙ্গে ড্রেসিং রুম শেরার করার সুযোগ পাবেন’।

আসন্ন এই টুর্নামেন্টে দল রয়েছে আইপিএলের তিন ফ্র্যাঞ্চাইজির। এরা হল দিল্লী, মুম্বাই ও কলকাতা। এছাড়াও টুর্নামেন্টটিতে রয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মালিকের গ্ল্যাজার পরিবার, ভারতের আদানি গ্রুপ এবং ক্যাপ্রি গ্লোবালের দল।

আরব আমিরাতের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের নিয়ম অনুযায়ী, ড্রাফট বা নিলামের আগে নিজেদের আইপিএল দল থেকে চারজন করে ক্রিকেটার নিতে পারবে আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজিরা।

তবে টুর্নামেন্টটিতে খেলার জন্য অনাপত্তি পত্র নিতে হবে নিজস্ব দেশের ক্রিকেট বোর্ডের। দল সাজাতে ২ মিলিয়ন ডলার করে খরচ করতে পারবে দলগুলো।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কয়েকদিন আগে সংযুক্ত আারব আমিরাত ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) সাধারণ সম্পাদক ‍মুবাশির উসমানি বলেন, ‘প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি তাদের পছন্দ মতো চারজন ক্রিকেটার ড্রাফট বা নিলামের আগে নিতে পারবে। যা আমরা পরে (ড্রাফট নাকি নিলাম) সিদ্ধান্ত নেবো। এটি যেকোনো খেলোয়াড় হতে পারে, যার নিজস্ব বোর্ডের অনাপত্তি পত্র রয়েছে।’

Check Also

গ্রুপপর্বেই শেষ বেলজিয়ামের সোনালি প্রজন্মের দৌড়, ক্রোয়েশিয়ার উত্তরণ

রেফারির শেষ বাঁশি। আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়ামে বসে পড়লেন লুকাকু-ডি ব্রুইনারা। গত বিশ্বকাপের সেমিফাইনালিস্ট ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published.