Home / খেলার খবর / মুশফিকের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে কফিনের শেষ পেরেক পুঁতলেন পাপন

মুশফিকের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে কফিনের শেষ পেরেক পুঁতলেন পাপন

খুব বেশি দূরে যাওয়ার প্রয়োজন নেই, ২০১৯ সালেও বাংলাদেশ ক্রিকেট মানেই ছিল ‘পঞ্চপাণ্ডব’ নির্ভর। সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মুশফিকুর রহিম আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

মাশরাফির অলিখিত অবসরের পর টেস্টকে বিদায় বলেছেন মাহমুদউল্লাহ। টি-টোয়েন্টি থেকে দূরে আছেন তামিম ইমবাল। সাকিব আল হাসান যেন সোনার হরিণ,

তিন ফরম্যাটের অধিনায়কই অবশ্য দলে পেতে চান তাকে। মুশফিকই তিন ফরম্যাট আঁকড়ে ধরে আছেন। নাজমুল হাসান পাপনের আঙুল যেন এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানের দিকেই।

ওয়ানডে বাদে বাকি দুই ফরম্যাটে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে পারছে না বাংলাদেশ দল। টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট ঢেলে সাজানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন পাপন। দুই ফরম্যাটেই নতুনদের সুযোগ দেওয়ার পক্ষে বিসিবি।

তাতে ‘কোপ’ পড়তে পারে সিনিয়র ক্রিকেটারদের ওপর। আজ রোববার রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে পাপন জানিয়েছেন, তিন ফরম্যাটের ‘অটো’ চয়েস সাকিব। কিন্তু চাইলেই পাওয়া যায় না তাকে।

তামিম টি-টোয়েন্টিতে নেই, মাহমুদউল্লাহ নেই টেস্টে। ওয়ানডে অধিনায়ক তামিমের টেস্ট খেলা নিয়ে কখনোই আপত্তি ছিল না বোর্ডের। ওয়ানডেতে ‘সাইলেন্ট কিলারের’

তকমা পাওয়া মাহমুদউল্লাহ টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের অধিনায়ক হিসেবে ভালো করছেন বলে আজও সাফাই দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি। বাকি শুধু মুশফিক।

তিনি তিন ফরম্যাটেই খেলতে চান। তবে কিছুদিন আগে বিশ্রামের নামে তাকে টি-টোয়েন্টি দল থেকে বাদ দেওয়া হয়। সম্প্রতি ফর্মও তার পক্ষে কথা বলছে না।

পাপন যেন আজ সেই মুশফিকের দিকেই যেন আঙুল তুললেন। জানালেন, দ্রুত তার বিষয়ে নেওয়া হবে সিদ্ধান্ত। পাপন বলছিলেন, ‘রিয়াদ টেস্ট থেকে সরে এসেছে। তামিম টি-টোয়েন্টি খেলছে না। মুশফিক এখনও খেলছে, আমি নিশ্চিত ওর সিদ্ধান্তও জানা যাবে।

ও নিশ্চয়ই চিন্তাভাবনা করছে। আমরা চাই না আমাদের খেলোয়াড়রা মন খারাপ করুক। তারা হাসিমুখে খেলুক। নিজেরা সিদ্ধান্ত নিক। যত তাড়াতাড়ি তারা নিজেদের সিদ্ধান্ত নিতে পারবে ততো ভালো। যদি সিদ্ধান্ত না নেয় তো একটা সময় আমাদেরকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

সঙ্গে যোগ করেন পাপন, ‘আমি মনে করি এই সিদ্ধান্তটা খেলোয়াড়রা নিতে পারলেই ভালো। খামোখা মিডিয়াকে না বলে বোর্ডের সাথে বসে সিদ্ধান্ত নিলেই ভালো হয়। তখন আমাদেরও সুবিধা হয়। বাইরের দেশে তা-ই হয়। আমাদের দেশেও এখন হবে।’

পাপনের কথায় পরিষ্কার, সাফল্যর দেখা পেতে সিনিয়দের বেছে বেছে খেলানোর ভাবনা বোর্ডের। তবে বিসিবির চাওয়া সেই সিদ্ধান্ত ক্রিকেটারই নিক। কিন্তু সাকিবের প্রসঙ্গে আসতেই নমনীয় বিসিবি সভাপতি।

পাপন বলছিলেন, ‘সাকিবের আবার এদের কারও সাথে মিল নেই। সাকিবের ব্যাপারটা বলা খুব কঠিন। সব ফরম্যাটে দলের সবাই তাকে চায়। আমরা আসলে

নিজেরাও জানি না সাকিব কোনটা খেলবে কোনটা খেলবে না। আমাদের জন্য বলা কঠিন। যখন ওর সাথে কথা বলি আমার মনে হয় ও সবগুলোই খেলতে চায়। আবার যখন খেলা আসে দেখা যায় কোনো না কোনো সমস্যা থাকে।’

Check Also

দুর্দান্ত খেলেও শেষ মুহুর্তে দুই গোল খেয়ে বিশ্বকাপ শুরু করলো মানের সেনেগাল

বিশ্বকাপে আগে কখনোই গ্রুপপর্বে আফ্রিকার কোন দলের কাছে হারেনি নেদারল্যান্ডস। অন্য দিকে সেনেগালও বিশ্বকাপে দু …

Leave a Reply

Your email address will not be published.